মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনায় ক্যারিয়ার

Rokeya Begum    ১১:৫৫ এএম, ২০১৯-০৭-০৬    9


মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনায় ক্যারিয়ার

প্রতিষ্ঠান চলে মানবসম্পদের গুণাগুণে। যে লোক নিয়োগ করা হলো তা যেন সঠিকভাবে নিজেদের কাজগুলো সুন্দর করে চালিয়ে যায় সেই দেখভালের দায়িত্ব মাবনসম্পদ বিভাগের। প্রতিষ্ঠানে যারা নিয়োপ্রাপ্ত থাকেন তাদের কাজের ভাগ অর্থাৎ কে কোন কাজ করবে তা মানবসম্পদ বিভাগই দেখবে। নিয়োগপ্রাপ্তদের কাজের মূল্যায়ন করাটাও এই বিভাগের কাজ। তরুণ প্রজন্ম বর্তমানে এই পেশায় নিজেদের আগ্রহ প্রকাশ করছেন এবং ক্যারিয়ারে নিয়োজিতও আছেন। যারা এই পেশায় আসতে চান পরামর্শ রইল তাদের জন্য।

মানবসম্পদ বা এইচআর কী : এই বিভাগের প্রধান কাজ হলো প্রতিষ্ঠানে কোনো নতুন কর্মী লাগবে কি-না। যদি লোক

নিয়োগ দিতে হয় তাহলে সেটা কোন বিভাগের জন্য, কতজন লোক নিয়োগ দেওয়া হবে- এমন প্রয়োজন এবং ভাবনাগুলো মানবসম্পদ বিভাগের কাজ। নিয়োগ দেওয়া হবে যেসব কর্মীকে তাদের কী কী গুণ থাকতে হবে তা নির্ধারণ করে দেয় মানবসম্পদ বিভাগ। প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের পরিচালনা করাই এই বিভাগের কাজ। একটি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক এবং ব্যবস্থাপকের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানের অন্য কর্মকর্তাদের সম্পর্ক কতটা ইতিবাচক হবে তা মানবসম্পদ বিভাগের কাজ।

শিক্ষাগত যোগ্যতা কী হবে, অভিজ্ঞতার প্রয়োজন আছে কি-না, এর পাশাপাশি কী পদ্ধতিতে নিয়োগ হবে, পরীক্ষা লিখিত না মৌখিক ইত্যাদি বিষয় হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগ পরিচালনা করে থাকে।

কাজের ভাগবণ্টন :কোন কর্মীকে কোন কাজে ভালো মানাবে কিংবা কে কোন কাজ ভালো করতে পারবে, সে অনুযায়ী কাজ ভাগ করে দেয় এইচআর বিভাগ। এ বিভাগটি নতুন কর্মচারী নিয়োগই করে না, তার সঙ্গে প্রশিক্ষণ দিয়ে কাজের উপযোগী করে গড়ে তোলা। প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের মাঝে পরিচিতি ঘটানো ও সম্পর্ক গড়ে তোলার কাজ এ বিভাগের। প্রত্যেক কর্মীর খবর রাখা, তার নিরাপত্তা, কাজের রেকর্ড, বোনাস নির্ধারণ, ছুটির হিসাব, কর্মী ছাঁটাই, বিভাগ পরিবর্তন, অফিসে আসা-যাওয়ার সময় দেখা ইত্যাদি এই বিভাগের কাজ। কর্মরত যারা আছেন তাদের ভালো কাজের মূল্যায়ন করা এইচআরের কাজ। কর্মীদের কাজের প্রেরণা প্রদানে তাদের ইতিবাচক ভূমিকা পালন করতে হয়। প্রতিষ্ঠানের সব কর্মীর ব্যাপারে এই বিভাগের পূর্ণাঙ্গ ধারণা থাকতে হয়। যারা দক্ষ, যোগ্য ও ভালো কাজ করে যাচ্ছে তাদের পুরস্কার প্রদানের কাজটিও এই বিভাগকে করতে হয়।

ক্যারিয়ার সহায়তাকারী প্রতিষ্ঠান : ব্যাংক, মিডিয়া হাউস, গার্মেন্ট কারখানা, ওষুধ কোম্পানি, প্রকাশনা সংস্থা, উন্নয়ন সংস্থা, টেলিকমিউনিকেশন ও শিল্প প্রতিষ্ঠানে এই বিভাগটি আছে। আপনি যদি হিউম্যান রিসোর্সে ক্যারিয়ার গড়তে চান, তবে বাংলাদেশে এমন অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে, যেখানে আপনি কাজ করতে পারবেন। পছন্দমতো প্রতিষ্ঠানে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি করতে পারেন ইচ্ছা করলেই।

টাকা আনা পাই : প্রথমেই যদি এই বিভাগে এন্ট্রি লেবেলে নিয়োগপ্রাপ্ত হন, তবে আপনার বেতন শুরু হতে পারে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকায়। তবে আপনি যদি নিজেকে প্রমাণ করে ফেলতে পারেন অর্থাৎ এই পেশায় আপনি দক্ষ এবং যোগ্য তাহলে উন্নতির সিঁড়ি টপকাতে খুব একটা সময় লাগবে না আপনার। আর তখন বেতন-ভাতাও বেড়ে যাবে অনেকখানি। সহকারী পদবি থেকে সর্বোচ্চ পদবিতে যেতে খুব একটা সময় লাগবে না। উপার্জনও তখন বেড়ে যাবে অনেক।

প্রশিক্ষণ নিতে চাইলে : এইচআরে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য পড়াশোনা করতে হবে নিয়মিত। কারণ পড়াশোনা-নিজেকে তৈরি করার আসলে বিকল্প কিছু নেই। এ বিষয়ে প্রাতিষ্ঠানিক পড়াশোনা করা জরুরি। যখনই আপনি স্থির করবেন ক্যারিয়ার গড়বেন এই পথে তখনই নিজেকে গুছিয়ে নিতে হবে। বাংলাদেশের সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিবিএ, এমবিএ কোর্সের মাধ্যমে এই বিষয়ে নিজেকে গড়ে তুলতে পারেন। আবার বেসরকারি অনেক বিশ্ববিদ্যালয় যেমন- নর্থ সাউথ, স্টামফোর্ড, ইস্ট ওয়েস্ট ও ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করতে পারেন।

দক্ষ এবং যোগ্য : আসলে প্রতিটি পেশায় দক্ষতা এবং যোগ্যতাই হচ্ছে প্রধান বিষয়। মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা করতে গেলেও ব্যক্তিকে কিছু গুণের অধিকারী হতে হয়। সেই গুণের প্রথমই হবে নেতৃত্ব দেওয়ার গুণ। এই গুণই সবার আগে এই পেশায় দরকার। যোগাযোগ বাড়ানোর দক্ষতা, নিয়োগকৃতদের অবস্থান বোঝা, সবার সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখা- এই গুণগুলো থাকতে হবে। কর্মক্ষেত্রে সবাইকে সমান দৃষ্টিতে দেখতে হবে। তাহলে এই পেশা আপনার জন্য ইতিবাচক হয়ে উঠবে। নিজেকে সৎ রাখা, পক্ষপাত না করা, সময়ানুবর্তিতা এবং পরিশ্রমী হতে হবে অনেক। থাকতে হবে কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট সম্পর্কে সস্পষ্ট ধারণা। তাহলে সফলতা আপনার হাতেই এসে ধরা দেবে।


সূত্র: সমকাল


রিটেলেড নিউজ

আরএকে সিরামিকসে চাকরির সুযোগ

আরএকে সিরামিকসে চাকরির সুযোগ

Ainun Nahar

জনবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে আরএকে সিরামিকস বাংলাদেশ লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটির ‘এক্সিকিউ... বিস্তারিত

সর্বশেষ

সেই চেনা রূপে এই বর্ষা

সেই চেনা রূপে এই বর্ষা

Rokeya Begum

ভরা আষাঢ়েও বৃষ্টি নেই। এ নিয়ে হা-হুতাশের শেষ ছিল না নগরবাসীর। তবে কি ষড়ঋতুর বাংলাদেশ থেকে হারিয়ে ... বিস্তারিত

জ্বর হলে অবহেলা না করে ডেঙ্গু পরীক্ষার আহ্বান

জ্বর হলে অবহেলা না করে ডেঙ্গু পরীক্ষার আহ্বান

Rokeya Begum

 বৃষ্টি ও আবহাওয়ার তাপমাত্রার সঙ্গে ডেঙ্গুর একটা সম্পর্ক রয়েছে মন্তব্য করে জ্বর হলেই অবহেলা না ... বিস্তারিত

চুল পড়া প্রতিরোধে রসুন

চুল পড়া প্রতিরোধে রসুন

Rokeya Begum

চুল পড়া রোধে পেঁয়াজের রস গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে সেই সঙ্গে রসুনও অনেকটা ম্যাজিকের মতো কাজ করে। ... বিস্তারিত

মেদ কমান সহজ ৫ ঘরোয়া উপায়ে |

মেদ কমান সহজ ৫ ঘরোয়া উপায়ে |

Rokeya Begum

সুন্দর মেদহীন শরীর কে না চায়? তবে এখনকার ফাস্ট ফুডের যুগে মেদহীন শরীর পাওয়া বেশিরভাগ মানুষের কাছে ... বিস্তারিত